নিউইয়র্ক     বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ভারতীয় কোম্পানির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ অক্টোবর ২০২২ | ০২:১৯ অপরাহ্ণ | আপডেট: ০১ অক্টোবর ২০২২ | ০২:১৯ অপরাহ্ণ

ফলো করুন-
ভারতীয় কোম্পানির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের সফরের একদিন পরই ইরানের পেট্রোলিয়াম এবং পেট্রোকেমিক্যাল কেনার কারণে একটি ভারতীয় কোম্পানির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিল যুক্তরাষ্ট্র। ভারত-ভিত্তিক পেট্রোকেমিক্যাল কোম্পানি তিবালাজি পেট্রোকেম প্রাইভেট লিমিটেডের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বিদেশি সম্পত্তি নিয়ন্ত্রণ দপ্তর। সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং হংকংয়ের-সহ একটি গ্রুপ অব কোম্পানির অংশ এই ভারতীয় প্রতিষ্ঠান।

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়ছে—ইরানের ব্রোকার এবং ভারত, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও হংকংয়ের বেশ কয়েকটি ফ্রন্ট কোম্পানি। এরা ইরানের পেট্রোলিয়াম এবং পেট্রোকেমিক্যাল পণ্যের জন্য অর্থ স্থানান্তর এবং শিপিংয়ের কাজ করেছে।

ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব ট্রেজারি অফিসের ফরেন অ্যাসেটস কন্ট্রোল (ওএফএসি) দপ্তরের তথ্য অনুসারে, তিবালাজি পেট্রোকেম প্রাইভেট লিমিটেড মিথানল এবং বেইজ অয়েল-সহ মিলিয়ন ডলার মূল্যের পেট্রোকেমিক্যাল পণ্য কিনেছে। ট্রিলিয়ান্স নামে একটি ইরানি কোম্পানির কাছ থেকে তারা এসব পণ্য কিনেছে, যারা মূল্য চীনে শিপিংয়ের জন্য বিদেশি ক্রেতাদের কাছে ইরানি পণ্য বিক্রির মধ্যস্থতা করে।

যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি দপ্তরের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘আজ, ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব ট্রেজারি অফিসের ফরেন অ্যাসেট কন্ট্রোল বিভাগ দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়ার ব্যবহারকারীদের জন্য কয়েক মিলিয়ন ডলার মূল্যের ইরানি পেট্রোকেমিক্যাল এবং পেট্রোলিয়াম পণ্য বিক্রির সঙ্গে জড়িত কোম্পানিগুলোর একটি আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে।’

‘আজকের পদক্ষেপটি ইরানের ব্রোকারদের এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত, হংকং ও ভারতের বেশ কয়েকটি ফ্রন্ট কোম্পানিকে লক্ষ্য করে নেওয়া। এরা ইরানি পেট্রোলিয়াম এবং পেট্রোকেমিক্যাল পণ্যের বিপরীতে অর্থ স্থানান্তর এবং শিপিংয়ে জড়িত।’ যোগ করে মার্কিন ট্রেজারি দপ্তর। অবশ্য ভারত সরকার এ ব্যাপারে এখনো কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের শাসনামলে ২০১৯ সালে ভারত ইরান থেকে অপরিশোধিত তেল আমদানি বন্ধ করে দেয়। ওই সময় যুক্তরাষ্ট্র ভারতসহ বেশ কয়েকটি দেশের জন্য ইরানের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্যে নিষেধাজ্ঞায় ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নবায়ন করেনি।

পরিচয়/সোহেল

শেয়ার করুন