নিউইয়র্ক     শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

আইবিএমের বিনিয়োগ নিয়ে বাইডেন

প্রযুক্তি খাতে চীনের তুলনায় এগিয়ে যাবে যুক্তরাষ্ট্র

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ০৮ অক্টোবর ২০২২ | ১২:২০ অপরাহ্ণ | আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০২২ | ১২:২০ অপরাহ্ণ

ফলো করুন-
প্রযুক্তি খাতে চীনের তুলনায় এগিয়ে যাবে যুক্তরাষ্ট্র

নিউইয়র্কের হাডসন রিভার ভ্যালিতে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস মেশিন (আইবিএম) যে ২ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে তার ফলে প্রযুক্তিগত উত্কর্ষের দিক থেকে চীনের তুলনায় যুক্তরাষ্ট্র অনেক এগিয়ে যাবে। সম্প্রতি দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ কথা জানিয়েছেন। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টের প্রতিবেদনের বরাতে টেকটাইমসের খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রীষ্মে সেমিকন্ডাক্টর শিল্পের অগ্রগতি ও বৈজ্ঞানিক গবেষণার জন্য ২৮ হাজার কোটি ডলারের প্যাকেজ ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছেন বাইডেন। আইবিএমের বিনিয়োগের সঙ্গে এটি বৃহত্তর পর্যায়ে শিল্প বিকাশের অনুষঙ্গ হিসেবে কাজ করবে। পগকিপসিতে দেয়া এক বিবৃতিতে বাইডেন জানান, জাতীয় ও অর্থনৈতিক নিরাপত্তার জন্য আইনটির প্রয়োজন ছিল। সেই সঙ্গে চীনের কমিউনিস্ট পার্টি এ আইন বাতিলের চেষ্টা চালিয়েছে বলেও জানান তিনি।

প্রেসিডেন্ট জানান, উন্নত প্রযুক্তির চিপ উৎপাদনে যুক্তরাষ্ট্র যে বিশ্বে তাদের শক্তিশালী অবস্থান ধরে রাখতে পেরেছে এ বিল সেটি নিশ্চিত করবে। আগামী ১০ বছরে গবেষণা, উন্নয়ন, সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও কোয়ান্টাম কম্পিউটিংয়ের বিকাশে আইবিএম ২০ বিলিয়ন বা ২ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে।

আগামী দুই দশকে নিউইয়র্কের আপস্টেটে চিপ উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপনে ১০ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগ পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে মাইক্রন। এর মাধ্যমে কারখানায় নয় হাজারের বেশি কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। এ ঘোষণার পর পরই আইবিএম তাদের বিনিয়োগের বিষয়টি প্রকাশ্যে আনল।

আগামী মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া মধ্যবর্তী নির্বাচনের আগে বিনিয়োগের এ ঘোষণাগুলোকে পুঁজি করতে চাইছেন বাইডেন। ওহাইওতে ইন্টেল ২ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের মাধ্যমে যে সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন করতে চাইছে গত মাসে তার কাছাকাছি একটি স্থানে ভাষণ দিয়েছিলেন বাইডেন।

হাডসন ভ্যালিতে আইবিএমের পগকিপসি উৎপাদনকেন্দ্রটি অবস্থিত। শিল্প বিপ্লবের সময় অঞ্চলটি যুক্তরাষ্ট্রের জন্য অন্যতম অর্থনৈতিক শক্তি ছিল। কিন্তু বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান কম ব্যয়বহুল অঞ্চলে কার্যক্রম স্থানান্তর করে নেয়ার কারণে এখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ ক্রমান্বয়ে কমতে থাকে বলে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট সূত্রে জানা গিয়েছে। আইবিএম জানায়, বর্তমানে তারা অঞ্চলটিকে প্রতিষ্ঠানটির কোয়ান্টাম কম্পিউটিং উন্নয়নের অন্যতম বৈশ্বিক হাবে পরিণত করতে কাজ করছে।

বাইডেন সরকার যখন চীনের কাছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসংবলিত চিপ সরবরাহ বন্ধের বিধিনিষেধ আরোপ করেছে তার সঙ্গে নতুন এ বিবৃতি প্রকাশ্যে আসে। বেইজিংয়ের সামরিক খাতে উন্নত চিপ ব্যবহার হতে পারে এমন শঙ্কায় বিধিনিষেধ আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর মাধ্যমে হুয়াওয়েসহ চীনের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বাণিজ্য-সংক্রান্ত সীমাবদ্ধতার মাত্রা আরো বাড়াবে। ২০১৯ সালে তত্কালীন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথম নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করেন। সূত্রের তথ্যানুযায়ী, বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চীনের আরো ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান, সরকারি গবেষণা সংস্থাসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ওপরও এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করতে পারেন।

পরিচয়/সোহেল

শেয়ার করুন