নিউইয়র্ক     রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকায় এনআরবি অ্যাক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন সার্টিফাইড শেফ খলিলুর রহমান

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ২৪ ডিসেম্বর ২০২২ | ১২:২২ অপরাহ্ণ | আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর ২০২২ | ১২:২৩ অপরাহ্ণ

ফলো করুন-
ঢাকায় এনআরবি অ্যাক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন সার্টিফাইড শেফ খলিলুর রহমান

ঢাকা : গত ২২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার ঢাকার শেরাটন হোটেলে জমকালো আয়োজনে পর্দা উঠলো এনআরবি ওয়ার্ল্ড অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত ‘এনআরবি প্রফেশনালস সামিট-২০২২’-এর। প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে বিশেষ সম্মাননা ‘এনআরবি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড’ গ্রহণ করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কর্তৃক লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত সার্টিফাইড শেফ খলিলুর রহমান। প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ উত্তরীয় এবং সম্মাননা ক্রেস্ট তার হাতে তুলে দেন।

অ্যাওয়ার্ড পেয়ে শেফ খলিলুর রহমান বলেন সারা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ থেকে যারা এই সামিটে যোগদান করেছেন তারা কোনো না কোনোভাবে বাংলাদেশকে সম্মানিত করছে। তাদের জন্য এই সম্মাননা অত্যন্ত আনন্দের ও গর্বের। একজন ক্ষূদ্র ব্যবসায়ী হিসেবে আমি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছি এতে করে আমার কাজের গতি এবং দায়িত্ব অনেক বেড়ে গেল এজন্য মহান স্রষ্টার কাছে কৃতজ্ঞতা ও শুকরিয়া জ্ঞাপন করি এবং শুকরিয়া জ্ঞাপন করি সকল মানুষের প্রতি। আমি সবসময় আমার দেশকে বুকে লালন করি। আমি সবসময় দেশকে মিস করি। আমাদের দেশে যারা বেকার আছে তার বেকার বসে না থেকে হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট, শেষ হিসেবে কোর্স করে নিজেদের পরিবর্তন করতে পারবে তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে পারবে। এসময় তিনি আরও বলেন, তরুনরা তাদের ক্যারিয়ার সংক্রান্ত ব্যাপারে যদি আমার কাছে আসে, আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো তার পাশে দাড়াতে। আমি বিশ্বাস করি তরুনরাই আগামীর ভবিষ্যত। তাই দেশ গঠন করতে হলে তরুনদের হাত সবার আগে শক্তিশালী করতে হবে।

অনুষ্ঠানে এনআরবি ওয়ার্ল্ড অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান সাখাওয়াত জন চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষসহ প্রবাসী বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বর্তমান সরকারের সাফল্য ও উন্নয়নের প্রশংসা করে সালমান এফ রহমান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নেতৃত্বে ১৪ বছরের মধ্যে মানুষের মধ্যে সেই বিশ্বাসটুকু হয়েছে যে বাংলাদেশে উন্নয়ন সম্ভব। এর আগে যারা ক্ষমতায় ছিল তারা কেউ সেটা পারেননি। কারণ তারা মনে করতো, বাংলাদেশের জন্ম হয়েছে দুর্ঘটনাক্রমে; এই দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন হবে না। কিন্তু বর্তমান সরকার প্রমাণ করেছে বাংলাদেশও বিশ্বে রোল মডেল হতে পারে।’

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও শিক্ষা এই দুই খাতে অনাবাসী বাংলাদেশিদের বিনিয়োগ করতে আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে এনআরবি ওয়ার্ল্ড এ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সাখাওয়াত জন চৌধুরী বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন এখন বাস্তব। সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা পার করে বাংলদেশ এখন টেকসই উন্নয়ন বাস্তবায়নের দিকে ধাবমান। এমতাবস্থায় স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণের লক্ষ্যে সকলের সম্মিলিত কার্যক্রম গ্রহণ করা সময়ের দাবি।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রবাসী বাংলাদেশিরা দেশের প্রতি দায়িত্ব পালনে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেন। একইসঙ্গে তারা অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে কৃষির উন্নয়নেও এগিয়ে আসেন। স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য স্মার্ট গ্রিডের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার এখন সময়ের দাবি।’-আকিব মাহমুদ প্রেরিত

শেয়ার করুন