নিউইয়র্ক     বৃহস্পতিবার, ১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৩০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ট্রাম্পের বাসায় তল্লাশি: সহিংসতার ঝুঁকি বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ১৬ আগস্ট ২০২২ | ০৫:৩৬ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১৬ আগস্ট ২০২২ | ০৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ

ফলো করুন-
ট্রাম্পের বাসায় তল্লাশি: সহিংসতার ঝুঁকি বেড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে

ফ্লোরিডায় সাবেক যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বাড়িতে তল্লাশির পর এফবিআই ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটির সদস্য, বিচার বিভাগ, সরকারি কর্মীদের বিরুদ্ধে হুমকি বেড়েছে। এফবিআইসদর দপ্তরের সামনে বোমা পেতে রাখার মতো ঘটনাও ঘটতে পারে। ট্রাম্পের ফ্লোরিডা এস্টেটের মার-আ-লাগোতে তল্লাশি চালানোর পর যুক্তরাষ্ট্রে নতুন এ অস্থিরতার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি ও ফেডারে ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই) বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে পাঠানো বুলেটিনে ট্রাম্প ইস্যুতে বাড়তে থাকা হুমকির বিষয়ে সতর্ক করেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

বুলেটিনে বলা হয়, ফ্লোরিডায় তল্লাশি পরোয়ানা কার্যকর করার পর এফবিআই ও হোমল্যান্ড সিকিউরিটির সদস্য, বিচার বিভাগ ও সরকারি কর্মীদের বিরুদ্ধে সহিংস হুমকির মাত্রা বেড়েছে। এমনকি এফবিআই সদর দপ্তরের সামনে বোমা পেতে রাখার হুমকিও রয়েছে। এবং মার-আ-লাগোতে তল্লাশিতে জড়িত কর্মকর্তাদের হত্যা, তল্লাশি পরোয়ানা অনুমোদনকারী বিচারকের প্রতি হুমকির মতো বিষয়ও রয়েছে।

এ ছাড়া বুলেটিনে ১১ আগস্টের একটির ঘটনার বিষয়েও বলা হয়েছে। সেই দিন এক ব্যক্তি এফবিআইয়ের সিনসিনাটি ফিল্ড অফিসে জোর করে ঢোকার চেষ্টা করেন।দায়িত্বরত এফবিআই কর্মকর্তারা বাধা দিলে ওই ব্যক্তি পালিয়ে যান এবং পরে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও এফবিআই এজেন্টদের সঙ্গে গোলাগুলিতে নিহত হন।যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বাসায় গত ৯ আগস্ট তল্লাশি চালিয়ে অতি গোপনীয়সহ মোট ১১টি নথি উদ্ধার করেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এফবিআই)।

গুপ্তচরবৃত্তি আইন লঙ্ঘনসহ তিনটি অভিযোগে এই অভিযান চালানো হয়। সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প অবশ্য বলছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই এই তল্লাশি চালানো হয়েছে ।উদ্ধার হওয়া নথিগুলো কয়েকটি শ্রেণিতে ভাগ করা হয়েছে। একটি তালিকা ‘টিএস/এসসিআই’ বা অতি গোপন/সংবেদনশীল তথ্যের জন্য সংরক্ষিত। এ নথির তালিকায় ‘অতি গোপন নথির চার সেট’, ‘গোপন নথির তিনটি সেট’ এবং ‘গোপনীয়’ নথির তিনটি সেট করা হয়েছে।

এফবিআইয়ের উদ্ধার করা সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ২০টি বাক্স, ফটো বাইন্ডার, ‘ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট’ সম্পর্কে লেখা এবং ট্রাম্পের দীর্ঘদিনের মিত্র রাজনৈতিক পরামর্শদাতা রজার স্টোনের পক্ষে লেখা একটি চিঠি।তবে ট্রাম্প তার সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে এক বিবৃতিতে বলেছেন, উদ্ধার হওয়া সবকিছু ‘শ্রেণিবদ্ধ’ এবং ‘নিরাপদে’ সংরক্ষণ করা হয়েছিল। তিনি বলেন, এসব জিনিস জব্দ করার কিছু নেই। রাজনৈতিক নাটক না করে, বাসায় না তল্লাশি চালিয়েও এগুলো তারা নিতে পারতেন।

তবে এফবিআইয়ের দাবি, ২০২১ সালে হোয়াইট হাউস ছাড়ার সময় গোপনীয় কিছু নথি সঙ্গে করে নিয়ে গিয়েছিলেন ট্রাম্প। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ সাবেক প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অভিযোগের দিকে এগোচ্ছে, এমন ধারণাই এখন স্পষ্ট। এর আগে ট্রাম্পের ছেলে ডোনাল্ড জুনিয়র এবং ইভাঙ্কাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল।নানা নাটকীয়তার পর গত বছরের ২০ জানুয়ারি ক্ষমতা ছাড়েন ট্রাম্প। ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি আবার লড়বেন বলেও আলোচনা চলছে

পরিচয়/এমউএ

শেয়ার করুন