নিউইয়র্ক     বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জি-২০ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, বিশ্বনেতাদের বরণ করছেন মোদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ০৭:০৯ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ০৭:০৯ পূর্বাহ্ণ

ফলো করুন-
জি-২০ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু, বিশ্বনেতাদের বরণ করছেন মোদি

জি-২০ সম্মেলনস্থল ভারত মান্দাপাতামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বরণ করে নেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি - গেটি ইমেজেস

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে শুরু হয়েছে জি-২০ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিকতা। বিশ্বনেতাদের বরণ করে নিতে সম্মেলনস্থল ‘ভারত মান্দাপাতামে’ পৌঁছেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি এক এক করে সব বিশ্বনেতাকে বরণ করে নিচ্ছেন। এই সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও বরণ করে নিতে দেখা যায় তাকে।

আজ শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) সম্মেলনটি শুরু হয়ে কাল রোববার পর্যন্ত চলবে। বিশ্বের ২০ শীর্ষ অর্থনৈতিক দেশের জোট জি-২০ এর সম্মেলনে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে যোগ দিয়েছেন শেখ হাসিনা নেতাদের বরণ করে নিতে স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৯টায় ভারত মান্দাপাতামে সম্মেলন কেন্দ্রে গিয়ে উপস্থিত হন মোদি। এরপরই বিশ্বনেতারা আসা শুরু করেন।

এই সম্মেলনে অংশ নিতে গতকাল শুক্রবার সকালে ঢাকা থেকে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫টায় মোদির সরকারি বাসভবনে একটি দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন তিনি। শনিবার সম্মেলনস্থলে পৌঁছানোর পর প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মোদিকে হাত মেলাতে দেখা যায়।

এদিকে এবারই প্রথমবারের মতো জি-২০ শীর্ষ সম্মেলন আয়োজন করছে ভারত। এই সম্মেলন উপলক্ষ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে দেশটি। এবারের সম্মেলনের মূলমন্ত্র হলো— ‘ভাসুধাইভা কুতুমবাকাম।’ প্রাচীন সংস্কৃত পাঠ মহা উপনিষদ থেকে এ বাক্যটি নেওয়া হয়েছে। এর অর্থ হলো, ‘এক পৃথিবী-এক পরিবার-এক ভবিষ্যত।’ এরমাধ্যমে মানুষ, পশু, পৃথিবী ও অণুজীবের জীবনের মূল্যের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।

প্রথমদিন ‘এক পৃথিবী’ এই মন্ত্রের ওপর সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এরপর মধ্যাহ্নভোজের বিরতি শেষে ভারতীয় সময় বিকাল ৩টায় শুরু হবে ‘এক পরিবার’ সম্মেলন। এরপর সন্ধ্যা ৭টায় প্রেসিডেন্ট দ্রুপধি মুর্মুর আয়োজিত ডিনারে যোগ দেবেন বিশ্বনেতারা।

তবে এবারের সম্মেলনে যোগ দেননি জোটের অন্যতম দুই শীর্ষ দেশ রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। তাদের এ অনুপস্থিতি সম্মেলনের সৌন্দর্যে কিছুটা ভাটা ফেললেও পুরো আয়োজনে এর বড় কোনো প্রভাব পড়বে না বলে ধারণা করা হচ্ছে। সূত্র: মিন্ট, এনডিটিভি

শেয়ার করুন