নিউইয়র্ক     বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ছেলের কীর্তিতে বিরাট বিপাকে জো-বাইডেন, নির্বাচনের আগেই মুখ পুড়ল প্রেসিডেন্টের

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ০৩:০২ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ০৩:০২ পূর্বাহ্ণ

ফলো করুন-
ছেলের কীর্তিতে বিরাট বিপাকে জো-বাইডেন, নির্বাচনের আগেই মুখ পুড়ল প্রেসিডেন্টের

সামনেই প্যুক্তরাষ্ট্রের রেসিডেন্ট নির্বাচন। তার আগেই বিরাট বিপাকে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তথ্য গোপন করে বন্দুক ক্রয়ের দায়ে ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেন। এই ইস্যুকে ঘিরে তোলপাড় শুরু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। মাদকের প্রভাবে থাকা অবস্থায় আগ্নেয়াস্ত্র রাখা র অভিযোগ সহ মোট তিনটি অভিযোগে তাকে দায়ী করা হয়েছে। যদিও সমস্ত অভিযোগই অস্বীকার করেছেন হান্টার।

এর আগে কংগ্রেসের স্পিকার কেভিন ম্যাকার্থি প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্ট তদন্তের ঘোষণা দিয়েছেন। তবে ছেলে হান্টারকে দোষী সাব্যস্ত করার পর জো বাইডেনের সমস্যা আরও বাড়বে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞমহল। হান্টার বাইডেন বন্দুক বিক্রির জন্য এক বন্দুক ব্যবসায়ীকে প্রতারণা করার অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে হান্টারের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।

ফলে বিরাট বিপাকে এখন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছেলে হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে এক বন্দুক ব্যবসায়ীকে প্রতারণা করার জন্য ফৌজদারি অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিজে হয়েছেন কংগ্রেসে রিপাবলিকানদের ইমপিচমেন্ট প্রক্রিয়ার শিকার।

গত মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্ট তদন্তের নির্দেশের খবর জানিয়েছেন হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার কেভিন ম্যাকার্থি। তবে ছেলে হান্টার আদালতে দোষী সাব্যস্ত হলে প্রেসিডেন্টের সমস্যা আরও বাড়বে।

একাধিক সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে হান্টারের বিরুদ্ধে ডেলাওয়্যারের ডিষ্ট্রিক্ট আদালতে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে যাতে বলা হয়েছে হান্টার বাইডেন ২০১৮ সালে বন্দুক কেনার সময় মাদকাসক্ত ছিলেন।

হান্টারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ যে যুক্তরাষ্ট্রে ২০২৪ সালের সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী প্রচারে ঝড় তুলবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। জো বাইডেনের বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচারে এই অভিযোগকেই তুরুপের তাস হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন সম্ভাব্য রিপাবলিকান প্রার্থী ও সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, যদিও তিনি নিজেই চারটি ফৌজদারি মামলার মুখোমুখি।

সংবাদ সংস্থা এএনআই- জানিয়েছে, বিচার বিভাগ প্রেসিডেন্টের ছেলে হান্টার বাইডেনকে মাদকাসক্ত হওয়ার পাশাপাশি অবৈধ অস্ত্র রাখার তিনটি অভিযোগে অভিযুক্ত করেছে। এই মামলায় হান্টার বাইডেনের সর্বোচ্চ ২৫ বছরের জেলও হতে পারে। এর আগেও তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলাও রয়েছে। হান্টার ট্যাক্স জালিয়াতি এবং মাদক সম্পর্কে মিথ্যা বলার অভিযোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার মার্কিন পার্লামেন্টের স্পিকার কেভিন ম্যাকার্থিও প্রেসিডেন্ট বাইডেনের বিরুদ্ধে ইমপিচমেন্ট তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মার্কিন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ম্যাককার্থি বাইডেনের পরিবারের ব্যবসায়িক লেনদেনের বিষয়ে তদন্ত শুরু করার নির্দেশ দিয়েছেন। ২০০৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন বিডেনের বিরুদ্ধে তার ছেলে হান্টার বিডেনকে বিদেশী বাণিজ্যিক লেনদেন সংক্রান্ত বিষয়ে সুযোগ-সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

উল্লেখ্য, আগ্নেয়াস্ত্র কেনার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বাধ্যতামূলকভাবে যে ফর্ম পূরণ করতে হয়। সেই ফর্মেই নিজের মাদকাসক্তি নিয়ে ভুল তথ্য দিয়েছিলেন হান্টার বাইডেন। হান্টার বাইডেনের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগে বলা হয়েছে, মাদকাসক্ত হওয়া সত্ত্বেও ২০১৮ সালে অবৈধ ভাবে বন্দুক রেখেছিলেন তিনি। এই অভিযোগগুলি প্রমাণিত হলে তাঁর ১০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। এদিকে হোয়াইট হাউস হান্টার বাইডেনের তদন্তের বিরোধিতা করেছে।তবে জানিয়েছে দোষী সাব্যস্ত হলে প্রেসিডেন্ট বাইডেন তাঁর পুত্র হান্টার বাইডেনকে ক্ষমা প্রদর্শন করবেন না ।

শেয়ার করুন