নিউইয়র্ক     বৃহস্পতিবার, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চীনা মুদ্রায় এলসি করতে চায় না বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১২:৪৭ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১২:৪৯ পূর্বাহ্ণ

ফলো করুন-
চীনা মুদ্রায় এলসি করতে চায় না বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো

চীন থেকে পণ্য আমদানিতে চীনা মুদ্রায় এলসি খোলার সুবিধা থাকলেও বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো এলসি করতে চায় না। ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেন, ব্যাংকে চীনা মুদ্রা না থাকা বা কম থাকার অজুহাত দেয়। আবার ঘাটতি মেটানোর কোন পদক্ষেপও নেয়া হয় না।

তবে বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, চীনা মুদ্রার ব্যবহার আগের চেয়ে বেড়েছে। কিন্তু গত অর্থবছরে চায়না মুদ্রায় কি পরিমাণ এলসি খোলা হয়েছে তার কোন হিসাব বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে নেই।

দেশের আমদানি ব্যয়ের পুরোটাই মেটানো হয় আমেরিকান ডলারে। গত বছরের শুরু থেকেই দেশে ডলারের সংকট দেখা দিলে চীনা মুদ্রায় আমদানি ব্যয় মেটানোর সুযোগ দেয় সরকার। এরআগে ২০১৮ সালে এ সুযোগ দেয়া হলেও তেমন সাড়া দেয়নি ব্যবসায়ীরা। তবে এবার ডলার সংকট কমাতে আমদানি ব্যয়ে চীনা মুদ্রার ব্যবহার বেড়েছে। গত অর্থবছরে মোট আমদানি ব্যয় হয়েছে ৬৯ বিলিয়ন ডলার। আর চায়না থেকে আমদানি করা হয়েছে ১৮ দশমিক পাচঁ-শূন্য বিলিয়ন ডলারের পন্য। মোট আমদানি ব্যয়ের শূন্য দশমিক তিন-আট শতাংশ মিটিয়েছে চীনা মুদ্রায়।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, ব্যাংকগুলো চীনা মুদ্রা রির্জাভের ঘাটতির কথা বলে এলসি খুলতে চায় না। দুই দেশের মুদ্রায় লেনদেন করার পদক্ষেপ নেয়ার তাগিদ দেন তারা।

চীনের সাথে বাণিজ্য ঘাটতির আকার বড় হওয়ায় রিজার্ভেও ঘাটতি রয়েছে। তবে ধীরে ধীরে চীনা মুদ্রার ব্যবহার বাড়ছে বলে জানায় বাংলাদেশ ব্যাংক। গত অর্থবছরে চীনা মুদ্রায় কি পরিমাণ এলসি খোলা হয়েছে, এমন কোন হিসেব নেই বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে। সূত্র : বৈশাখী টিভি

শেয়ার করুন