নিউইয়র্ক     রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঘরে তৈরি জবা চা পানের যত উপকারিতা

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ০৬:০৭ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ০৬:০৭ পূর্বাহ্ণ

ফলো করুন-
ঘরে তৈরি জবা চা পানের যত উপকারিতা

পানির পরেই চা বিশ্বের সর্বাধিক উপভোগ্য পানীয়। এর একধরনের স্নিগ্ধ, প্রশান্তিদায়ক স্বাদ রয়েছে এবং অনেকেই এটি উপভোগ করে। চায়ের সঙ্গে বাঙালির প্রেম বেশ পুরনো। তবে লিকার চা, দুধ চা আর গ্রিন টিতেই বেশিরভাগ সময় সীমাবদ্ধ তা। শরীরের জন্য বেশ উপকারি বিভিন্ন হারবাল টি। এই যেমন জবা ফুলের চা।

জবা ফুলের রয়েছে বেশ কিছু ওষধি গুণ। অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে পূর্ণ এ চান পানে মেলে নানা সুফল। জবা ফুলের চা বিশ্বব্যাপী দারুণ জনপ্রিয়। চলুন জেনে নিই জবা চায়ের উপকারিতা-

মানসিক অবসাদ কমায়

মন বিষণ্ণ হয়ে আছে? কোনো কাজেই মন বসছে না? এমনটা হলে ঝটপট এক কাপ জবা চা পান করুন। মন সতেজ হয়ে যাবে দ্রুত। জবাতে থাকা উপকারি ভিটামিন এবং মিনারেল স্নায়ুতন্ত্রে তৈরি হওয়া প্রদাহ কমানোর পাশাপাশি অ্যাংজাইটি কমাতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়।

ওজন কমায়

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত জবার চা পান করলে শরীরে শর্করা এবং স্টার্চের শোষণ কমে যায়। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ওজন কমতে শুরু করে। তাই ওজন কমানোর মিশনে থাকলে এই চা পান করতে পারেন নিয়মিত।

উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের প্রকাশ করা এক রিপোর্ট অনুযায়ী, এই বিশেষ চায়ে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ নিমেষে রক্তচাপকে স্বাভাবিক অবস্থায় নিয়ে আসতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই অফিসের কাজের চাপের ফাঁকে এক কাপ জবা চায়ে চুমুক দিতে পারেন নিশ্চিন্তে।

লিভারের কর্মক্ষমতা বাড়ায়

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে জবা ফুলে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীর থেকে টক্সিন বের করে দেয়। ফলে লিভারের কর্মক্ষমতা বাড়ে। নিয়মিত জবা চা পানে ক্যানসারের আশঙ্কা কমে। সেই সঙ্গে দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়।

সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে

জবা ফুলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যাসকরবিক অ্যাসিড। এটি আমাদের দেহের ভিটামিন সি’র চাহিদা মেটায়। সেই সঙ্গে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

কোলেস্টেরল কমায়

সময়মতো খাবার না খেলে এবং রক্তচাপ বাড়লে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ে। জবা চা হার্টে রক্ত জমাট বাঁধতে দেয় না। এটি দেহের কোলেস্টেরলের মাত্রাও কমায়।

পিরিয়ডের সমস্যা দূর করে

নিয়মিত জবা চা পান করলে পিরিয়ডের ক্রাম্প ও যন্ত্রণা অনেকটাই কমে যায়। অন্যান্য অস্বস্তিও দূর হয়। হরমোনাল ইমব্যালেন্স কমাতেও এই পানীয়টি দারুণ কাজ করে।

জবা চা বানাবেন যেভা

বেসাবধানে জবা ফুলের পাপড়িগুলো ছিড়ে নিন। মাঝখানের ডাঁটাটি ফেলে দিন। চুলায় পানি গরম করুন। দারুচিনি বা এলাচের সঙ্গে পাপড়িগুলো দিয়ে মিনিট দশেক ফুটিয়ে নিন। রঙ বদলে গেলে ছেঁকে ফেলুন। মধু মিশিয়ে পান করুন। চাইলে গ্রিন টিও ব্যবহার করতে পারেন। জবার পাপড়িগুলো ধুয়ে সাতদিন রোদে রেখে শুকিয়েও কাঁচের জারে সংরক্ষণ করতে পারেন। চা বানানোর সময় এখান থেকে শুকনো পাপড়ি দিয়ে দিলেই হবে।

পরিচয়/এমউএ

শেয়ার করুন