নিউইয়র্ক     সোমবার, ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খেরসন থেকে সৈন্য প্রত্যাহার শুরু হয়েছে: রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশ: ১০ নভেম্বর ২০২২ | ১২:৪৮ অপরাহ্ণ | আপডেট: ১০ নভেম্বর ২০২২ | ১২:৪৮ অপরাহ্ণ

ফলো করুন-
খেরসন থেকে সৈন্য প্রত্যাহার শুরু হয়েছে: রাশিয়া

ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ শহর খেরসন থেকে সৈন্য প্রত্যাহার শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়া। স্থানীয় সময় আজ বৃহস্পতিবার রাশিয়ার সেনাবাহিনী বিষয়টি জানিয়েছে। গতকাল বুধবার দেওয়া ঘোষণা অনুসারে এই প্রত্যাহার শুরু হয়েছে বলে দাবি করেছে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।

ইউক্রেনের আঞ্চলিক রাজধানী খেরসনের বিষয়টি নিশ্চিত করে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, রুশ সৈন্যরা এরই মধ্যে দিনিপ্রো নদীর ডান তীর থেকে সরে আসতে শুরু করেছে। এক বিবৃতিতে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘রাশিয়ার সেনা ইউনিটগুলো পূর্বে অনুমোদিত পরিকল্পনা কঠোরভাবে অনুসরণ করে দিনিপ্রো নদীর বাম তীরে নিজেদের অবস্থান গড়ে তোলার লক্ষ্যে সরে আসছে।’

এর আগে, গতকাল বুধবার ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ শহর খেরসন থেকে রুশ সৈন্যদের পিছু হটতে নির্দেশ দেওয়া হয়। রাশিয়ার দখল করা ইউক্রেনের আঞ্চলিক রাজধানীগুলোর মধ্যে এটি একটি। বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদন অনুসারে, রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু স্থানীয় সময় বুধবার খেরসন থেকে রুশ সৈন্য প্রত্যাহারের নির্দেশ দেন। টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক বৈঠকে সের্গেই শোইগু জেনারেল সের্গেই সুরোভিকিনের সঙ্গে বৈঠকে এই নির্দেশ দেন। সুরোভিকিনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেছেন, ‘সৈন্য প্রত্যাহার শুরু করুন।’

তবে রাশিয়ার ঘোষণা ভুয়া বলে আখ্যা দিয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা মিখাইলো পদোলিয়াক বলেছিলেন তিনি রুশ সৈন্য প্রত্যাহারের কোনো লক্ষণ দেখছেন না। তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে লিখেছেন, ‘আমরা কোনো লক্ষণ দেখছি না যে—রাশিয়া যুদ্ধ ছাড়াই খেরসন ছেড়ে চলে যাচ্ছে।’ তিনি আরও লিখেছেন, ‘রাশিয়া ঘোষণাটি একটি চক্রান্ত হতে পারে।’ পদোলিয়াক রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর আদেশকে ‘একটি মঞ্চায়িত নাটক’ বলে অভিহিত করেছেন।

শেয়ার করুন