নিউইয়র্ক     শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

খাদ্যপণ্যের বৈশ্বিক মূল্যসূচক দুই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন বলেছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা

পরিচয় ডেস্ক

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ০৩:৪৫ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ০৩:৪৫ পূর্বাহ্ণ

ফলো করুন-
খাদ্যপণ্যের বৈশ্বিক মূল্যসূচক দুই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন বলেছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা

জাতিসংঘের খাদ্য সংস্থার বৈশ্বিক খাদ্যমূল্যের সূচক গত আগস্টে দুই বছরের মধ্যে সর্বনিম্নে নেমে এসেছে। কারণ, চাল ও চিনির দাম বাড়লেও এর আগের মাসে বেশির ভাগ খাদ্যপণ্যের দাম তুলনামূলক বেশ কমে যাওয়ায় সার্বিক মূল্যসূচক নিম্নমুখী রয়েছে।

বৈশ্বিকভাবে সবচেয়ে বেশি বাণিজ্য হয়, এমন পণ্যদ্রব্যের দাম ওঠানামার ওপর নজর রাখে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও)। আজ শুক্রবার সংস্থাটি বলেছে, আগস্ট মাসের ১২১ দশমিক ৪ পয়েন্টের তুলনায় জুলাই মাসে খাদ্যমূল্যের সংশোধিত গড় সূচক ছিল ১২৪ দশমিক শূন্য পয়েন্ট।

২০২১ সালের পর থেকে আগস্টের এই পরিসংখ্যান সর্বনিম্ন। এর অর্থ হলো, ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার পর ২০২২ সালের মার্চে পৌঁছানো সর্বকালের সর্বোচ্চ খাদ্যমূল্যের সূচক এখন ২৪ শতাংশ কমে এসেছে।

এফএও বলছে, ভারতের রপ্তানি বিধিনিষেধের পর চালের দাম ১৫ বছরের সর্বোচ্চ হওয়া সত্ত্বেও সামগ্রিক সূচকে দুগ্ধজাত পণ্য, উদ্ভিজ্জ তেল, মাংস ও খাদ্যশস্যের দাম কমে গেছে।

বৈশ্বিক এই সংস্থা বলেছে, সিরিয়াল সূচক গত জুলাইয়ের তুলনায় শূন্য দশমিক ৭ শতাংশ কমেছে। কারণ, উত্তর গোলার্ধে গমের দাম কমেছে। যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলে শস্যের ব্যাপক উৎপাদনের কারণে গত টানা সাত মাসে ভুট্টার দাম প্রায় তিন বছরের মধ্যে সর্বনিম্নে নেমে এসেছে।

এফএও আরও বলেছে, বৈশ্বিক চালের মূল্যের সূচক মাসওয়ারি প্রায় ১০ শতাংশ বেড়েছে। কারণ, জুলাই মাসে ভারত ইন্ডিকা সাদা চালের রপ্তানি নিষিদ্ধ করে। এতে নতুন ফসল ওঠার আগে চালের বাণিজ্য ব্যাহত হওয়ায় এই দাম বেড়ে যায়।

এল নিনো আবহাওয়া পরিস্থিতিতে বিশ্বজুড়ে চিনি সরবরাহ হুমকির মুখে পড়েছে বলে মনে করে এফএও। এ কারণে চিনির সূচক আগস্টে ১ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়েছে, যা চলতি বছরের আগের তুলনায় ৩৪ শতাংশ বেশি। এতে অন্যান্য পণ্যের দাম কমলেও এটির বেড়েছে। এ নিয়ে টানা পাঁচ মাসের মতো দাম বাড়ল। গত মাসে চিনির মূল্যসূচক বেড়েছে ৫ দশমিক ৫ শতাংশ।

আগস্টে উদ্ভিজ্জ তেলের দাম ৩ দশমিক ১ শতাংশ কমেছে। আর দুগ্ধজাত পণ্যের দাম কমেছে ৪ শতাংশ।

খাদ্যশস্যের সরবরাহ ও চাহিদা সম্পর্কিত একটি পৃথক প্রতিবেদনে এফএও চলতি বছর বিশ্ব শস্য উৎপাদনের পূর্বাভাস দিয়েছে ২ দশমিক ৮১৫ বিলিয়ন টন, যা আগের ধারণা করা ২ দশমিক ৮১৯ বিলিয়ন টনের থেকে সামান্য কম।- রয়টার্স

শেয়ার করুন