নিউইয়র্ক     শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

এমবাপের রেকর্ড দ্রুততম গোল আর হ্যাট্রিকের রাতে উজ্জ্বল নেইমারও, পিএসজির গোল উৎসব

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ: ২২ আগস্ট ২০২২ | ০৫:৫১ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ২২ আগস্ট ২০২২ | ০৫:৫১ পূর্বাহ্ণ

ফলো করুন-
এমবাপের রেকর্ড দ্রুততম গোল আর হ্যাট্রিকের রাতে উজ্জ্বল নেইমারও, পিএসজির গোল উৎসব

এ মৌসুমের শুরুতেই নেইমার জুনিয়র ও কিলিয়ান এমবাপের তিক্ততার কথা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে।আর দ্বিতীয় ম্যাচেই মন্টিপেলিয়েরের বিপক্ষে দ্বিতীয় পেনাল্টি শট নেওয়ার সময় সেটি আরো প্রকাশ্য হয়ে পড়ে।

দলের গুরুত্বপূর্ণ দুজন খেলোয়াড়ের এমন শীতল সম্পর্ক চিন্তায় ফেলে দেয় পিএসজি ক্লাব কর্তৃপক্ষকে।কোচ দুজনকে একান্তে ডেকে বলে দেন আগামীতে মাঠে কোন ধরনের পারস্পরিক অসহিষ্ণুতা ক্লাব ভালোভাবে নেবেনা।

গতকালের ম্যাচ দেখে এক প্রকার অনুমান করা যায় পিএসজি কোচের শোনান মন্ত্র বেশ ভালোভাবেই কাজে লেগেছে।মেসি-নেইমার-এম্বাপ্পের আজ কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে মাঠে খেলেছেন। আর তাতেই জ্বলে পুড়ে অঙ্গার দলটির প্রতিপক্ষ লিল।রীতিমত ৭-১ গোলে পিএসজির কাছে বিধ্বস্ত হয়েছে দলটি।পিএসজির ‘ম্যাজিকাল ত্রয়ীর’ এমন পারফম্যান্সের পর গত কিছুদিন ধরে মেসি-নেইমারের সাথে এমবাপের সম্পর্কের অবনতির যে কথা বিশ্ব মিডিয়ায় আলোচনার ঝড় তুলেছিল তাই এখন মনে হচ্ছে দূরের কোন বাতিঘর।

লিলের ঘরের মাঠে এদিন কিক অফ হতে না হতেই লিড নিয়ে গালতিয়ের শিষ্যরা।নেইমার মেসি নিজেদের মধ্যে বল পাস দিতে না দিতে এমবাপে আনমার্কড অবস্থায় ঢুকে পড়েন লিলের রক্ষণ দুর্গের ভেতর।সুযোগ বুঝে মেসি হাওয়ায় বাড়িয়ে দেন বল। সে বলে এমবাপে যখন নীলের গোলপোস্টে বল জড়ান ম্যাচের বয়স তখন মাত্র আট সেকেন্ড!

ফ্রেঞ্চ ফরোওয়ার্ডের এই গোল লিগ আঁ-র ইতিহাসে (২০০২ সাল থেকে লিগ আঁ নামে যাত্রা শুরু হয়) দ্রুততম। কিন্তু ফ্রান্সের শীর্ষ লিগের ইতিহাসে এমবাপ্পে এই গোলে ছুয়েছেন ৩০ বছর আগের একটি রেকর্ড।ফুটবল যাবতীয় খুঁটিনাটি পরিসংখ্যানের খবর রাখা ‘মিস্টারচিপ’ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী,১৯৯২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি কানের বিপক্ষে ৭.৯ সেকেন্ডে গোল করেন কায়েনের মিশেল রিও। এমবাপ্পের গোলটি ৮.৩ সেকেন্ডে।

এরপর প্রায় পুরো ম্যাচই প্রতিপক্ষকে নিয়ে একরকম ছেলেখেলায় করেছেন মেসি-নেইমাররা।১৭ মিনিটে অফসাইডের কারণে মেসির করা গোলটি বাতিল হলেও ম্যাচের ২৭ মিনিটে তার গোলেই ব্যাবধান দিগুণ করে পিএসজি।৩৯তম মিনিটে স্কোর লাইন ৩-০ করে ফেলেন হাকিমি। নেইমারের সঙ্গে পাস খেলে এগিয়ে যান এই ডিফেন্ডার। পরে কঠিন এক এঙ্গেল থেকে থেকে চমৎকার শটে বল জালে পাঠান তিনি।

চার মিনিট পর গোল উৎসবের যোগ দেন নেইমারও। মেসির পাস লিলের একজনের গায়ে লেগে একটু দিক পাল্টালে পেয়ে যান এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। নিয়ার পোস্ট দিয়ে বল জড়ান লিলের জালে।দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে নিজের দ্বিতীয় ও দলের ৫ গোল করেন নেইমার। এরপর ৬৬ ও ৮৭ মিনিটে আরো দুটি গোল করে ম্যাচে হ্যাট্রিক পূরণ করেন কিলিয়ান এমবাপে।এর আগে ম্যচের ৫৪তম মিনিটে নিজেদের একমাত্র গোলটি করে লিল।

গোল উৎসবের বাইরেও পিএসজি সমর্থকদের কাছে ম্যাচটা ম্যাচটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে দলের ‘ত্রিরত্নে’র আগুনঝরা পারফম্যন্সের জন্য। এমবাপ্পের হ্যাটট্রিক, নেইমার নিজে করেছেন দুই গোল, বানিয়েছেন আরও তিনটি, মেসি একটি করেছেন,আর একটি করিয়েছেন।
পরিচয়/এমউএ

শেয়ার করুন