Main Menu

গরুর মাংস বেচায় গোবর ও গোমূত্র খাইয়ে শাস্তি

gosas

তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল গরুর মাংস বেচার। আর এ অভিযোগেই দুজনকে ‘হাতেনাতে’ ধরে গোবর-গোমূত্র খেতে বাধ্য করল ‘গরু রক্ষা’ দলের সদস্যরা। নির্মম এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের রাজস্থান রাজ্যের বাদাপুর সীমান্তের কাছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, গরুর মাংস বিক্রির অভিযোগে স্থানীয় ‘গরু রক্ষা’ দলের কর্মীরা রিজওয়ান হোসেন ও মুক্তার আক্তার নামে দুজনকে হেনস্তা করেছে। তবে হেনস্তার শিকার হওয়া দুজন গরুর মাংস বেচার কথা অস্বীকার করেন। বর্তমানে থানা হেফাজতে থাকা এই দুজন জানিয়েছেন, তাঁরা কেবল মাংস পরিবহন করতেন।

এদিকে দুজন সংখ্যালঘুকে লাঞ্ছিত করার সময় ভিডিও ধারণ করলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ভাইরাল হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে রাজস্থান গরু রক্ষা দলের সভাপতি ধর্মেন্দ্র জয়দেব সংবাদমাধ্যমকে বলেন, রাজস্থানে গরুর মাংস বিক্রি নিষিদ্ধ। তবুও এর মাঝেই কিছু অসাধু লোক গরুর মাংস বিক্রি করত।

ধর্মেন্দ্র জয়দেব আরো জানান, এই ব্যাপারে দলের স্বেচ্ছাসেবকরা সতর্ক ছিল। এরই ফলশ্রুতিতে গতকাল সোমবার রাতে মিওয়াত থেকে দিল্লি যাওয়ার পথে ওই দুজনের গাড়ি ধাওয়া করে তাদের কাছ থেকে ৭০০ কেজি গরুর মাংস উদ্ধার করা হয়।

এদিকে গরুর মাংস উদ্ধারের পর রিজওয়ান ও মুক্তারকে গরু রক্ষা দলের কর্মীরা মারধর করেছে বলে অভিযোগ। মারধরের পর এই দুজনকে ফরিদাবাদ থানায় দিয়ে আসা হয়।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*