নিউইয়র্ক     রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ  | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গোপালগঞ্জে ১২ ধরনের ভ্যাকসিন উৎপাদন ও রপ্তানির পরিকল্পনা

বাংলাদেশ ডেস্ক

প্রকাশ: ০১ অক্টোবর ২০২২ | ১২:৪৭ অপরাহ্ণ | আপডেট: ০১ অক্টোবর ২০২২ | ১২:৪৭ অপরাহ্ণ

ফলো করুন-
গোপালগঞ্জে ১২ ধরনের ভ্যাকসিন উৎপাদন ও রপ্তানির পরিকল্পনা

ঢাকা : গোপালগঞ্জে নির্মাণাধীন ভ্যাকসিন তৈরি ও গবেষণা প্লান্টে করোনাভাইরাসসহ ১২ ধরনের ভ্যাকসিন উৎপাদন করা হবে। দেশের চাহিদা মিটিয়ে এসব ভ্যাকসিন বিদেশেও রপ্তানি করা হবে বলে সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছে সরকার।

২৯ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকের কার্যপত্র থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

কমিটির সভাপতি শেখ ফজলুল করিম সেলিমের সভাপতিত্বে বৈঠকে অংশ নেন কমিটির সদস্য আ ফ ম রুহুল হক, মুহিবুর রহমান মানিক, আব্দুল আজিজ, সৈয়দা জাকিয়া নুর এবং আমিরুল আলম মিলন।

বৈঠক সূত্র জানায়, সংসদীয় কমিটির আগের বৈঠকে চলতি অর্থবছরে (২০২২-২৩) ভ্যাকসিন তৈরি ও গবেষণা প্লান্ট স্থাপন করে ভ্যাকসিন উৎপাদনের সুপারিশ করেছিল। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে ওই সুপারিশের অগ্রগতি প্রতিবেদন দেওয়া হয়।

এতে জানানো হয়, ভ্যাকসিন প্লান্ট স্থাপনে জমি অধিগ্রহণে ২৮ কোটি ৬৭ লাখ ২৬ হাজার ৭৯০ টাকা প্রাক্কলন করা হয়েছে। এ টাকা এসেনসিয়াল ড্রাগস লিমিটেডের নিজস্ব তহবিল থেকে পরিশোধের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ভ্যাকসিন প্লান্ট স্থাপন প্রকল্পের ডিপিপি প্রণয়নের জন্য পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করা হয়েছে। প্রকল্পে অর্থায়নে এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক সম্মতি দিয়েছে। তাদের প্রতিনিধি গত ২৩ সেপ্টেম্বর প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করেছেন।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, করোনার ভ্যাকসিনসহ ১২ ধরনের ভ্যাকসিন উৎপাদনের লক্ষ্যে কাঁচামাল, টেকনোলজি ট্রান্সফার ও বৈজ্ঞানিক বিষয়ক যাবতীয় কাজ সম্পাদনের জন্য দাপ্তরিকভাবে একজন পরামর্শক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশে উৎপাদিত ভ্যাকসিন বিদেশে রপ্তানির জন্য ড্রাগ রেগুলেটরি অথরিটির ম্যাচুরিটি লেভেল-৩ উন্নীত করতে ওষুধ আইন ২০২২ প্রণয়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবারের বৈঠকে এ-সংক্রান্ত পরিকল্পনা দ্রুত বাস্তবায়নের সুপারিশ করা হয় বলে সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। বৈঠকে চিকিৎসা ক্ষেত্রে দেশে উচ্চ শিক্ষা প্রসারের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন গবেষণা কার্যক্রমে সরকারি-বেসরকারি মেডিকেলের অধ্যাপক/সহযোগী অধ্যাপক/সহকারী অধ্যাপকদের গবেষণায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

পরিচয়/টিএ

শেয়ার করুন